“দিল্লি হিংসার দায় নিয়ে পদত্যাগ করুন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,” বুধবার দাবি করলেন সনিয়া গান্ধি

নিজস্ব সংবাদদাতা খবর ২৪: নয়া দিল্লি: দিল্লি হিংসার দায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের (Home Minister Amit Shah) নেওয়া উচিত। বুধবার এ ভাষাতেই আক্রমণ করলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধি (Sonia Gandhi)। উত্তরপূর্ব দিল্লিতে ছড়িয়ে পড়া হিংসায় (Delhi Violence) এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ২১। আহত শতাধিক। এই পরিস্থিতিতে কংগ্রেসের সদর দফতর আকবর রোডে সাংবাদিক বৈঠক করে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটি। সভানেত্রী সনিয়া গান্ধি ছাড়াও সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, একে অ্যান্টনি, গুলাম নবি আজাদ-সহ অন্য নেতৃত্ব। সেই বৈঠকেই এদিন সংবাদ মাধ্যমের সামনে দিল্লি হিংসা নিয়ে সরব হয়েছিলেন কংগ্রেস সভানেত্রী। তিনি প্রশ্ন তোলেন, “স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ কোথায়? গত একসপ্তাহ ধরে উনি কী করছেন? চলতি সপ্তাহেই বা উনি কোথায় ছিলেন? স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যখন দেখলেন পরিস্থিতি হাতের বাইরে, তখন আধা-সামরিক বাহিনী কেন ডাকলেন না?” এমন একাধিক প্রশ্নবাণে এদিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী-সহ তাঁর মন্ত্রককে কাঠগড়ায় তোলেন জাতীয় রাজনীতির ‘ম্যাডাম’। তাঁর দাবি, “হিংসা ছড়িয়ে পড়া, মৃত্যু মিছিল: এই ঘটনার জন্য দায়ী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তাই কংগ্রেস পার্টি তাঁর পদত্যাগ দাবি করছে।” সনিয়া গান্ধি পরামর্শ দিয়েছেন, উত্তপ্ত এলাকায় মহল্লা পার্টি গড়তে হবে। যারা উত্তেজনা দেখলেই রুখে দাঁড়াবে। মুখ্যমন্ত্রীকে আরও সক্রিয় হতে হবে। গুজব রটনা থেকে নিজেদের বিরত রাখতে হবে। এদিকে, এই ঘটনার চারদিন পর টুইট করে শান্তি বজায়ের আবেদন জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শান্তি ও সম্প্রীতি, দেশের কেন্দ্রীয় আবেগ, টুইটে স্পষ্ট করেন মোদি।গত রবিবার থেকে নাগরিকত্ব আইন দ্বন্দ্বে তপ্ত দিল্লি। পন্থী বনাম বিরোধীদের সংঘর্ষে প্রাণ গিয়েছে ২১ জনের। গুলিবিদ্ধ কিংবা পাথরের ঘায়ে জখম প্রায় শতাধিক। জানা গিয়েছে, এই হিংসার জেরে বোর্ড পরীক্ষা স্থগিত রেখেছে সিবিএসই। বুধবার বন্ধ এলাকার প্রায় সব সরাকারি স্কুল। রায়ট গিয়ারে ফ্ল্যাগমার্চ দিচ্ছেন আধা-সেনার জওয়ান ও দিল্লি পুলিশ। দেখলেই গুলি অর্থাৎ শুট অ্যাট সাইটের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।দিল্লি পুলিশের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্ট। এই পরিস্থিতির মধ্যে এদিন সন্ধ্যায় নিরাপত্তা সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটি বৈঠকে বসবে। সেই বৈঠকে অজিত ডোভাল পরিস্থিতি পর্যালোচনার সাম্প্রতিক পর্যবেক্ষণ তুলে ধরবেন বলে খবর।