“দেশপ্রেমী বউ চাই”, বিজ্ঞাপন দিলেন বেকার চিকিৎসক, ভাইরাল সেই বিজ্ঞাপন

নিজস্ব সংবাদদাতা খবর ২৪: যে কোনও সংবাদপত্রের পাত্র-পাত্রী চাই বিভাগ বা ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইটগুলিতে (Matrimonial Website) যে বিজ্ঞাপনগুলো প্রকাশিত হয় তার এক একটা এক একরকম। সেই বিজ্ঞাপনে পুরুষ এবং মহিলা দু’তরফেই বিভিন্ন রকম চাহিদার তালিকা থাকে, কেউ চাইছেন সুন্দরী শিক্ষিতা রুচিশীলা, গৃহকর্মে নিপুণা পাত্রী তো উল্টোদিকে আবার পাত্রের খোঁজে হয়তো মেয়ের বাবা বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন অপরিসীম অর্থের মালিক, ভদ্র, সভ্য, রুচিশীল পিছুটান হীন জামাই চাই। কখনো কখনো কিছু বিজ্ঞাপন দেখলে তো আপনার পেট ফেটে হাসিও আসতে পারে। তবে সম্প্রতি একটি সংবাদপত্রে দেওয়া পাত্রী চাই-য়ের বিজ্ঞাপন খুব ভাইরাল হয়েছে। বিয়ের ষোলোআনা শখ আছে বেকার দন্ত চিকিৎসকের (Unemployed Dentist), পসার জমাতে না পারলেও জমিয়ে সংসার করতে চান, তাই সুন্দরী,সুশীলা কট্টর দেশপ্রেমী পাত্রী খুঁজছেন তিনি। একটি সংবাদপত্রে পাত্রী চাই বিভাগে তাঁর এই বিজ্ঞাপন (Matrimonial Ad) ভাইরাল হল।বিজ্ঞাপনদাতার নাম ডঃ অভিনব কুমার, তাঁর বয়স ৩১ বছর। বিজ্ঞাপনে অভিনব লিখেছেন, “আমি একজন অত্যন্ত ফর্সা, সুন্দরী, অত্যন্ত সৎ, নির্ভরশীলা, প্রেমময়ী এবং যত্নশীলা, সাহসিনী, শক্তিধারী এবং ধনবতী বউ খুঁজছি”।চিকিৎসকের চাহিদা এখানেই শেষ হয়নি। তিনি বিজ্ঞাপনে আরও লিখেছেন, “পাত্রীকে অবশ্যই কট্টর দেশপ্রেমিক হতে হবে। প্রয়োজনে দেশের সেনাবাহিনীতে যোগ দিতে পারা এবং ক্রীড়াক্ষেত্রে যোগদানের মতো প্রতিভা থাকতে হবে । শিশুদের লালন-পালনে বিশেষজ্ঞ হতে হবে পাশাপাশি তাঁকে একজন ভারতীয় হিন্দু ব্রাহ্মণ ঘরের মেয়ে হতে হবে। কীভাবে ভাল রান্না করতে হয় তাও জানতে হবে পাত্রীকে। মেয়েটি ঝাড়খণ্ড বা বিহারের বাসিন্দা হতে হবে। শুধু তাই নয়, তাঁর মধ্যে ৩৬ টি গুণের সমাহারও থাকা দরকার”। এই দীর্ঘ বিজ্ঞাপনের পাশাপাশি তার নিচে এই কথাও লেখা আছে, “বিয়ে করার কোনও তাড়া নেই”।সোশ্যাল মিডিয়ায় এই বিজ্ঞাপন নিয়ে সাংঘাতিক চর্চা হচ্ছে। একজন নেটিজেন লিখেছেন, “মেয়েটির কাছ থেকেই সব কিছু আশা করবেন নাকি আপনি নিজেও কিছু করবেন … অন্তত এক গ্লাস জল তুলে সেটা পান করুন অন্তত।”এই বিজ্ঞাপন দেখে একজন সোশ্যাল সাইটে লিখেছেন, “আমি মনে করি ওনার নিজের ছায়াকেই বিয়ে করা উচিত।”